বাংলাদেশে লোহা ও স্বর্নের খনির সন্ধান পাওয়া গেছে। অচিরেই তোলা হবে।

জাতীয় সংবাদ

শেয়ার করুন

বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা ২মাস ধরে কূপ খনন করে অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ১৮ই জুন, মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন। দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার ইসবপুর গ্রামে দেশে প্রথমবারের মতো এই উন্নত মানের লোহার আকরিকের খনির সন্ধান পাওয়া গেছে।

ছবি-ইউটুব

খনন কাজে নিয়োজিত জি.এস.বির উপপরিচালক মোহাম্মদ মাসুম সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বলেন, বিশ্বের যে কয়েকটি দেশে লোহার খনি আবিষ্কার করা হয়েছে তার মধ্যে বাংলাদেশের আকরিকে লোহার ৬৫%-এর ওপরে। কানাডা, চীন, ব্রাজিল, সুইডেন ও অষ্ট্রেলিয়ার লোহার খনির মান ৫০ শতাংশের নিচে। জয়পুরহাটে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের পরীক্ষাগার থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

তারা জানান, ভূগর্ভের ১ হাজার ৭৫০ ফুট নিচে ৪০০ ফুট পুরুত্বের লোহার আকরিকের একটি স্তর পাওয়া গেছে। যা এক ব্যতিক্রমী ঘটনা। এই খনির সম্পদ তোলতে পারলে বাংলাদেশের অর্থনীতি আরো গতিশীল হবে বলে তারা আশা করেন।এর আগে জিএসবি ২০১৩ সালে ইসবপুর গ্রামের ৩ কিলোমিটার পূর্বে মুশিদপুর এলাকায় কূপ খনন করে খনিজ পদার্থের সন্ধান পেয়েছিল। সেই গবেষণার সূত্র ধরে চলতি বছরের ১৯ এপ্রিল থেকে ইসবপুরে কূপ খনন শুরু করা হয়। এরপর এক হাজার ৩৮০ থেকে দেড় হাজার ফুট গভীরতা পর্যন্ত খননকালে আশার আলো দেখা যায়। এ খবর পেয়ে ২৬ মে জিএসবির মহাপরিচালক জিল্লুর রহমান চৌধুরীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এখানে পরিদর্শনে আসেন।

খনিটির ব্যাপ্তি ৬-১০ বর্গ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত। এখানে স্বর্ণের অস্তিত্বের পাশাপাশি কপার, নিকেল ও ক্রোমিয়ামেরও উপস্থিতি রয়েছে। ১ হাজার ১৫০ ফুট গভীরতায় চুনাপাথরের সন্ধানও মিলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *