Sun. Apr 5th, 2020

সাবেক রাষ্ট্রপতি হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ পরলোকগমন করেছেন

ডেস্কঃ সাবেক রাষ্ট্রপতি হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ আজ রবিবার ১৪ জুলাই, ২০১৯ সকাল ৭ঃ৪৫ মিনিটে ঢাকা সিএমএইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাহি রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়ছিল ৮৯ বছর। তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও স্পীকার শোক প্রকাশ করেন। হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ তিনি বর্তমান সংসদের বিরোধী দলের নেতা হিসাবে অধিষ্টিত ছিলেন।

সাবেক সেনাপ্রধান ল্যাপ্টেনেন্ট জেনারেল হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ তিনি ১৯৮২ সালের ২৪ মার্চ সামরিক অভ্যুর্তানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করেন এবং দীর্ঘ নয় বছর শাসন করার পর ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর গণঅভ্যুর্তানের ফলে ক্ষমতা ছেড়ে দেন। ১৯৮৬ সালে তিনি জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠা করেন এবং এই দলের মনোনয়ন নিয়ে ১৯৮৬ সালে পাঁচ বছরের জন্য দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন । তার শাসনামলে প্রশাসন বিকেন্দ্রিকরন করেন এবং জেলা ও উপজেলা পরিষদের অবকাঠামো গঠন করেন।

হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ তিনি ১৯৩০ সালের ১ ফেব্রুয়ারি তারিখ রংপুর জেলায় দিনহাটা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি রংপুর জেলায় শিক্ষাগ্রহণ করেন এবং ১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৫১ সালে তিনি পাকিস্তান সেনাবাহিনীর অফিসার্স ট্রেনিং স্কুলে যোগ দেন এবং ১৯৫২ সালে সেকেন্ড ল্যাপ্টেন্যান্ট হিসেবে কমিশনপ্রাপ্ত হন। ১৯৭২ সালে মুক্তিযোদ্ধ চলাকালীন সময় তিনি পাকিস্তানে অবস্থান করছিলেন এবং পরবর্তিতে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর পাকিস্থানে অবস্তানরত সকল বাংলাদেশীদের স্বদেশে ফেরার জন্য মুক্তিদেয় এবং তাদের সাথে এইচএম এরশাদ বাংলাদেশে চলে আসেন। পাকিস্তান থেকে দেশে ফেরার পর ১৯৭৩ সালে এরশাদ সাহেবকে বাংলাদেশ আর্মীতে অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। ১২ ডিসেম্বর ১৯৭৩ সালে তিনি কর্নেল ও ১৯৭৫ সালের জুন মাসে ব্রিগেডিয়ার পদে পদোন্নতি পান। ১৯৭৮ সালে তাকে লেফটেন্যান্ট জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি দিয়েছিলেন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং এরশাদ একই বছরের ডিসেম্বরে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব বুঝে নেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

হায়দার আলী | ঠাডা ইন্টারভিউ বরিশাইল্লা | Haydar Ali Comedy

ভালোবাসার দাম না দিলা | ঐশীর নতুন গান | Oyshee new song