অবশেষে মিন্নি অভিযুক্ত পরে গ্রেফতার, আদালতে তার দাবী সে নির্দোষ, ৫দিন রিমান্ডে

জাতীয় সংবাদ

শেয়ার করুন

ডেস্কঃ স্বামীর হত্যার সাথে মিন্নি জড়িত না বলে সে সব সময় দাবী করে আসছে। কিন্তু বিভিন্ন প্রমানাদিতে মিন্নি তার স্বামীর হত্যার সাথে সম্পৃক্ততা আছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে চুড়ান্ত তদন্তের মাধ্যমে বেড়িয়ে আসবে সত্য ঘটনা এবং সঠিক বিচার পাওয়ার আশায় আক্রান্ত পরিবার।

জুলাই ১৭, ২০১৯ রোজ বুধবার নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে পুলিশে গ্রেফতার করে এবং আদালতে হাজির করে পুলিশ ৭দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির মিন্নির বিরুদ্ধে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করেন এবং বিস্তারিত শুনানির পর বিজ্ঞ আদালত ৫দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা তিনি বলেন এই মামলার মিন্নি প্রধান স্বাক্ষী হলেও ১২ নম্বর আসামী রেজোয়ানুল হক ওরফে টিক টক হৃদয় গত ১৪ জুলাই আদালতে তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলে যে মিন্নি রিফাত হত্যার সাথে জড়িত। হত্যাকারীদের সাথে মিন্নি একাধিকবার মোবাইলে কথা বলেছে হত্যাকান্ড ঘটনার আগে ও পরে এবং পুলিশ মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের ফলে প্রমান মিলেছে যে এই হত্যাকান্ডের সাথে মিন্নির সম্পৃক্ততা আছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সঞ্জীব দাস এই মামলার রিমান্ড শুনানির বিস্তারিত গণমাধ্যমকে জানান। তিনি বলেন আদালত জিজ্ঞাস করেন যে তার কোন আইনজীবী আছে কি না এবং তার কিছু বলার আছে কি না উত্তরে মিন্নি বলেন যে আমি নির্দোষ এবং আমার স্বামীর হত্যার বিচার চাই। কিন্তু মিন্নির কাছে যখন আদালত জানতে চায় যে, আসামীদের সাথে আপনার একাধিকবার মোবাইলে কথা হয়েছে হত্যাকান্ড ঘটনার আগে ও পরে এব্যাপারে আপনার মতামত কি উত্তরে মিন্নি চুপ করে ছিলেন কিছুই বলতে পারেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *